বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

বিচিত্র

বগুড়ায় গরুর ‘র‌্যাম্প শো’

আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৮:২৭

‘র‌্যাম্প শো’- শব্দ দুটি শুনলেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে আলোর ঝলকানি, সাজ-পোশাক, সুরের তালে তাল মিলিয়ে নিত্যনতুন ডিজাইনের পোশাকে মডেলদের আনাগোনা। কিন্তু বগুড়ায় হয়ে গেলো ব্যতিক্রমী র‌্যাম্প শো। কোনো নারী বা পুরুষ মডেল নয়, এ শোতে র‍্যাম্পে হেঁটেছে বিশালাকার স্বাস্থ্যবান সব গরু। এ জন্য সাজানোও হয়েছে গরুগুলোকে। ব্যতিক্রমী এ আয়োজন দেখতে আজ শুক্রবার বগুড়ার ঠেঙ্গামারায় টিএমএসএস বিনোদন পার্কে হাজির হয়েছিলেন কয়েকশ দর্শক।

বাংলাদেশ ডেইরি ফারমার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিডিএফএ) উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছে উত্তরবঙ্গ গরু মেলা। আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় এ মেলা উদ্বোধন করেন বগুড়া -৬ (সদর) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য রাগেবুল আহসান রিপু। মেলার উদ্বোধন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা ডেইরি ফারমার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ইমরান হোসেন। উত্তরবঙ্গ গরু মেলার প্রধান সমন্বয়কারী তৌহিদ পারভেজ বিপ্লবের সঞ্চালনায় মেলায় বিশেষ অতিথি ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক ইমদাদুল হক তালুকদার, সচিব নাহিদ রশিদ, এসিআই এগ্রিবিজনেসের সভাপতি এফ এইচ আনসারী প্রমুখ।

মেলা প্রাঙ্গণে সরেজমিনে দেখা যায়, মাঠজুড়ে ছিল ব্রাহামা, আরসিসি, নর্থ বেঙ্গল গ্রে, শাহীওয়াল, সিজারিয়ান, ভুট্টীসহ দেশি-বিদেশি বিভিন্ন জাতের গরু। তবে ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের আকর্ষণের কেন্দ্রে ছিল ১ হাজার ৪০০ কেজি ওজনের অস্ট্রাল গরু। আমেরিকার টেক্সাসে জন্ম নেওয়া ব্রাহমা জাতের একটি ষাঁড় গরু এনেছিলেন বগুড়ার আর কে অ্যাগ্রোর রাহাত খান। দুই বছর আগে বিমানে গরুটি বগুড়ায় আনা হয়েছে। এর ওজন বর্তমানে এক টনের মত। এছাড়া ভারতের রাজস্থান থেকে আনা ক্যাংগ্রাস নামে গরুকে ঘিরে দর্শকদের আগ্রহ দেখা গেছে। মিজান অ্যাগ্রো গরুটি নিয়ে এসেছে। তারা ৬টি গরু এনেছে।

এ মেলার বিশেষ আকর্ষণ ছিল গরুর র‌্যাম্প শো। বিকেল সাড়ে ৪টায় এই র‌্যাম্প শোর আয়োজন করা হয়। চারিদিকে দর্শক, মাঝে বিশেষ মঞ্চ। আর সেখানে হাঁটানো হয়েছে গরুগুলোকে। এ সময় গরুর মালিকরা তাদের গরুর জাত, বয়স এবং দাম সবাইকে জানিয়ে দিচ্ছিলেন। 

মেলার প্রধান সমন্বয়ক তৌহিদ পারভেজ বিপ্লব বলেন, মেলায় দুই শতাধিক স্টল রয়েছে। উত্তরাঞ্চলের ১৬ জেলার খামারিরা তাদের আকর্ষণীয় গরু, ছাগল, ঘোড়া, ভেড়া ও দুম্বাসহ নানা পশু মেলায় এনেছেন। এখানে অংশ নিয়েছেন দুই শতাধিক খামারি। প্রান্তিক পর্যায়ে এমন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে খামারিরা আরও সমৃদ্ধ হবে বলে আশা তার।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন