বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

শেকৃবিতে আবাসিক হলে বসেই মাদকসেবন, আটক ৬

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৬:৫৩

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়মিত চলছে মাদকবিরোধী অভিযান। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি এবং হল প্রশাসন যৌথভাবে আবাসিক হলে পরপর দুইদিন অভিযান চালিয়ে মাদকের আসর থেকে ছয় মাদকসেবীকে আটক করেছে। গত বুধবার ও বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব সিরাজউদ্দৌলা হল এবং শেরেবাংলা হল থেকে মোট ছয়জনকে গাঁজাসহ আটক করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এদের মধ্যে চারজনকে পুলিশে দেওয়া হয়েছে।

হল প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে শেরেবাংলা হলের ছাদ থেকে আটক চারজনের মধ্যে দুইজন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রাহাত আফনান (১১ ব্যাচ) ও অভিজিৎ চৌধুরী (১১ ব্যাচ), তাদের বর্তমানে ছাত্রত্ব নেই। বাকি দুইজন অভিজিৎ এর বহিরাগত বন্ধু দিপক দিপ্ত ও পার্থ সাহা। এ চারজনকে পুলিশে দেওয়া হয়েছে।

প্রক্টরিয়াল বডির প্রাথমিক জিজ্ঞাসবাদে ধৃত রাহাত আফনানসহ অন্য মাদকাসক্তরা জানায়, মাদক সেবনের সময় কৃষ্ণ কৃপা আনন্দ, কাজল, জনি, প্রকাশ (জনির বন্ধু), কুন্ডুও ছিল। কিন্তু তারা আগেই মাদকের আসর থেকে চলে যায়।

জানা যায়, কবি কাজী নজরুল ইসলাম হলের ২১৮ নম্বর কক্ষে ও নবাব সিরাজুদ্দৌলা হলের ৭১৫ নম্বর কক্ষে নিয়মিত বিভিন্ন ধরনের মাদকের আসর বসে। অনেকেই নিরাপদ জায়গা হিসেবে এসব রুমে মাদক সেবন করতে আসে। এর আগে বুধবার রাতে নবাব সিরাজউদ্দৌলা হলের সিঁড়িতে গাজা সেবনরত অবস্থায় দুই শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়। আটক দুই শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যানিমেল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের আব্দুল্লাহ আল জোবায়েদ (১৭ ব্যাচ) এবং মর্তুজা আল মিমুন (১৮ ব্যাচ)।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশীদ বলেন, ‘শেরেবাংলা হল থেকে আটক করা চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছি। মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান চলছে ও চলবে।’ নবাব সিরাজুদ্দৌলা হলের আটক দুই শিক্ষার্থীদের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ওই দুই শিক্ষার্থী এর আগেও মাদকসহ ধরা পড়েছে। হল থেকে তাদের বহিষ্কারের বিষয়ে প্রভোস্ট সিদ্ধান্ত দেবেন। আমরা শৃঙ্খলা কমিটি এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নেব। তবে এবার এদের ছাড় পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

শেরেবাংলা নগর থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক জালাল উদ্দীন বলেন, ‘শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাদের হাতে চারজন মাদকসেবিকে আটক করে হস্তান্তর করেন। আটক চারজনের কাছে ২৫ গ্রাম গাঁজা পাওয়ায় আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে’।

ইত্তেফাক/এসসি